ফেসবুক বা ওয়েবসাইট হ্যাকিং এর সাথে আমরা সবাই পরিচিত।অনেকে আবার হ্যাকিং পারিও। 😎 আমার বিশ্বসেরা দশ ব্ল্যাক হ্যাট হ্যাকারের ব্লগটা পড়লে আপনারও হ্যাকার হবার শখ জাগতে পারে। 😀                          সে যাই হোক,আজকের বিষয় মানব মস্তিষ্ক হ্যাক নিয়ে।হ্যা,এবার হ্যাক করা যাবে মানব মস্তিষ্ক।বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির কল্যানে মানুষ দিন দিন আরো উন্নত হচ্ছে।সে উন্নতিরই এক প্রতিফলন ঘটাল ইউনিভার্সিটি অফ অক্সফোর্ড এবং ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার বিজ্ঞানীরা।মানুষের মস্তিষ্ক হ্যাক করে গোপন তথ্য চুরি করা যে সম্ভব, সম্প্রতি তার প্রমাণ দিয়েছে।এ কাজে বিজ্ঞানীরা ব্যবহার করেছেন, স্বল্পমূল্যের ইমোটিভ ব্রেইন কম্পিউটার ইন্টারফেস বা ইমোটিভ বিসিআই।

ইমোটিভ বিসিআই।
ইমোটিভ বিসিআই।

বিজ্ঞানীদের গবেষণায় সহযোগিতা করেন একাধিক স্বেচ্ছাসেবক। ওই স্বেচ্ছাসেবকদের কয়েকজনকে ইমোটিভ বিসিআই হেডসেট পরিয়ে কম্পিউটারের সামনে বসিয়ে দেন বিজ্ঞানীরা। এরপর মস্তিষ্কের পি৩০০ সিগন্যাল অনুসরণ করে সংগ্রহ করেন স্বেচ্ছাসেবকদের বিভিন্ন ব্যক্তিগত গোপন তথ্য।

ইমোটিভ বিসিআই ব্যবহার করে স্বেচ্ছাসেবকদের মস্তিষ্ক থেকে সংগ্রহ করা ডেটা থেকে খুব সহজেই তাদের ঠিকানা, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এবং কার্ড পিন নম্বর খুঁজে বের করে ফেলেন বিজ্ঞানীরা।তবে বিজ্ঞানীরা আশংকা করছেন, এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে আগামীতে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ওপর হ্যাকিং চালাতে পারে নানা অশুভ শক্তি।