‘চায়না লেবার ওয়াচ’ নামের একটি সংগঠন জানিয়েছে, চীনে স্যামসাং-এর ফ্যাক্টরিতে ১৪ বছরের কম বয়সি শিশু শ্রমিক কাজ করে। তাদের দৈনিক ১১ ঘণ্টা কাজ করতে হয় এবং এতে মাত্র একটা বিরতি থাকে। কাজের সময় আহত হলেও যথাযথ ক্ষতিপূরণ পায়না তারা।সংগঠনটি জানিয়েছে, চীনে স্যামসাং-এর ফ্যাক্টরিতে বেশ কয়েকজন শিশু শ্রমিক কাজ করছে, যাদের বয়স ১৪ বছরের কম।

ওই রিপোর্ট প্রকাশ হলে স্যামসাং জানিয়েছে, তারা ফ্যাক্টরিগুলোতে আবার পরিদর্শন করবে। এর আগে পরিদর্শনের সময় এ ধরনের কোনো সমস্যা পাওয়া যায়নি বলে স্যামসাং দাবি করেছে।
স্যামসাং জানিয়েছে, ‘স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স কাজের পরিবেশের বিষয়ে দু’টি ভিন্ন অন-সাইট পরিদর্শন করেছে এ বছর। পরিদর্শনে সেগুলোতে কোনো অনিয়ম পাওয়া যায়নি।’লেবার ওয়াচ সংগঠনটি ফ্যাক্টরিতে শুধু অপ্রাপ্তবয়স্ক শ্রমিকই পায়নি, তাদের ওপর শারীরিক নির্যাতনের প্রমাণও তারা পেয়েছে। এ ছাড়াও কাজের সময় আহত হলে তার যথাযথ চিকিৎসা বা ক্ষতিপূরণও দেয়না ফ্যাক্টরির ব্যবস্থাপনা বিভাগ।

তাছাড়া ১১ ঘন্টা কাজ করতে গিয়ে তারা মাত্র একবার খাবারের জন্য বিরতি পায়, যেটা কাজের জন্য ‘ভয়ানক’ বলে রিপোর্টে বলা হয়েছে। তাছাড়া, ভালো কাজের পুরষ্কার না থাকলেও প্রোডাক্টে ভুল ধরা পড়লে বড় অংকের জরিমানা গুনতে হয় এ শিশুদেরই। 😯