আমাদের এই দেশের আনাচে-কানাচে অসংখ্য কুঃসংস্কার ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।এগুলো আমাদের লোক সাহিত্যেরই অংশ বিশেষ।কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের ব্যপার এই যে এই কুঃসংস্কার গুলো সংগ্রহের চেষ্টা কেউ করছে না।আসুন আমরা সবাই মিলে এই কুঃসংস্কার গুলো একত্রিত করি।EduportalBD.com এই কুঃসংস্কার গুলো কে সংগ্রহ করার চেষ্টায় এগিয়ে এসেছে।একার পক্ষে এত গুলো সংগ্রহ করা অসম্ভব প্রায়।তাই আপনাদের সহায়তা আমাদের একান্ত কাম্য।আপনার জানা কোনো কুঃসংস্কার থাকলে আমাদের গ্রুপে পোস্ট করে বা আপনি নিজেও সাইটে পোস্ট করে জানাতে পারেন।আশা করি আমাদের এই প্রচেষ্টায় আপনাদের সমর্থন পাবো।
:!: আমাদের ফেসবুক গ্রুপঃ www.Facebook.com/Groups/EduportalBD


  • লৌকিক ব্যাখ্যা: পছন্দের ফল সামনে থাকলেই যে কারোরই লোভ সামলানো কষ্টসাধ্য হয়ে যায়।ফল খাওয়ার পর পানি খাওয়ার প্রয়োজন হতেই পারে। তবে আমাদের আলোচ্য কুসংস্কার অনুসারে এখানেই বিপত্তি।ফল খেতে পারবেন কিন্তু পানি খেতে পারবেন না।কেন? কারণ হল তাতে নাকি ফলের গুনাগুণ পানির সাথে ধুয়ে যায়।সেটা তখন শরীরের কোনই কাজে লাগে না।

 

ফল খাওয়ার পর পানি খেতে নেই

  • বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা: বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যায় যাওয়ার আগে অন্য একটা কথা বলি।যারা এ কুসংস্কারটা বিশ্বাস করেন তাদের বলছি, বলুন তো, পানি খেলে ফলের গুনাগুণ যে ধুয়ে যায়, ধুয়ে গিয়ে কোথায় যায়?পেটেই তো যায় তাই না, তাহলে সমস্যাটা কই!!! 🙂 বিজ্ঞানও বলছে তাই।পানি খেলে সমস্যা তো নেই উল্টো পানি খাওয়া প্রয়োজন।কারণ ফলের গুনাগুণ আমাদের শরীরে সঠিকভাবে ব্যবহৃত হওয়ার জন্য পানি অতীব প্রয়োজন।তাছাড়া শুকনো ফল খাওয়ার সময় গলায় আটকে গেলে, পানি ছাড়া তো গতি নেই।সুতরাং নিশ্চিন্তে ফল খান সাথে পানিও খান……..