অ্যাপল এর আইফোন সিরি (SIRI), গুগল নাউ,  স্যামসাং এর S Voice এর পর দুনিয়া কাপাতে এবার এসে গেলো মাইক্রোসফটের কর্টানা (Cortana) .

স্মার্টফোনের ভার্চুয়াল আসিস্ট্যান্ট এর ক্ষেত্রে এক নতুন যুগের সুচনা করতে যাচ্ছে কর্টানা।

Your browser does not support the video tag.

কি এই কর্টানাঃ কর্টানা হল মাইক্রোসফটের একটি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যক্তিগত সহকারী আপ্লিকেশন।  মুলত এটি একটি Voice Recognition ভিত্তিক সফটওয়্যার। ব্যবহারকারীর মৌখিক কমান্ড অনুজায়ী কাজ করতে পারে এটি। microsoft-cortana-assistant বিশেষ কি আছে কর্টানায়ঃ প্রশ্ন জাগতে  পারে বিশেষ এমন কি আছে কর্টানায়, যা একে গুগল নাউ, সিরি, এস ভয়েস থেকে আলাদা করেছে।? প্রধান পার্থক্য হল বুদ্ধিমত্তায়। মাইক্রোসফটের মতে যেকোন Voice Recognition  এর তুলনায় প্রযুক্তিগত ভাবে অনেক এগিয়ে আছে কর্টানা। ইতিমধ্যেই ফুটবল ওয়ার্ল্ড কাপ ২০১৪ এখন পর্জন্ত সকল খেলার নিখুত ভবিষ্যত বানী করে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আছে এটি। Microsoft-Updates-Cortana-for-Windows-Phone-with-Predictions-for-2014-FIFA-World-Cup প্রতিটি ম্যাচের আগে কর্টানা কে জিজ্ঞেস করা হয় সেই ম্যাচে কে জিতবে? অদ্ভুতভাবে প্রতিটি ম্যাচেই একদম সঠিক  ভবিশ্যত বানী করে আলোচনার একদম শীর্ষে আছে কর্টানা… চাইলেই কর্টানাকে আপনি রাখতে পারবেন নো ডিস্টার্ব মোডে। অথবা সেটিং পরিবর্তন  করে দিতে পারবেন যাতে সে আপনাকে “স্যার” বা “আপনার নাম’ ধরে ডাকবে। অলস সময়গুলো আপনি কর্টানার সাথেই গল্প করেই পার করতে পারবেন। এছাড়া ইভেন্ট শিডিউল, ভয়েস কমান্ডের মাধ্যমে ছবি তোলা, ভিডিও করা , ফোন করা বা এস এম এস করা ইত্যাদী সাধারন সুবিধা গুলো তো আছেই। প্রিয় দলের আপডেট, সম সাময়িক খবর সব কিছু আপনাকে স্বয়ংক্রীয় ভাবে জানিয়ে দিবে আপনাকে কর্টানা। কবে  কার জন্মদিন, কিংবা কবে কাকে কোথায় উইশ করতে হবে তাও বলে দেবে। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হল, কাকে কি উইশ করবেন বা কি উপহার দিবেন তাও সাজেশন দিবে কর্টানা, আপনার সাথে তার সম্পর্ক অনুযায়ী। কারা ব্যবহার করতে পারবেন কর্টানা ?  উইন্ডোজ মোবাইল ৮.১ ব্যবহারকারী যে কেউ বিনামুল্যে ব্যবহার করতে পারবেন কর্টানা। তবে অতি শীঘ্রই ডেস্কটপ ও ট্যাবলেট ব্যবহারকারী দের জন্যও আসবে কর্টানা। cortanawp811_640.0_standard_640.0 তো আর দেরি কেনো? শুরু করে দিন কর্টানার সাথে 😛