ঘোড়ায় চড়তে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে শরীরের নিম্নাংশ প্যারালাইজড হয়ে গিয়েছিলো বৃটিশ নারী ক্লেয়ার লুমাস-এর। এরপর তিনিই প্রথম ব্যক্তি যিনি হাসপাতালে ব্যবহৃত রোবোটিক স্যুট বাসায় নিয়ে গেলেন।
দুর্ঘটনার পর ক্লেয়ার লুমাস হাসপাতাল এবং রিহ্যাবিলেশন সেন্টারে রোবোটিক পা ব্যবহার করেছিলেন।

এই পা দিয়ে তিনি ১৭ দিনে লন্ডন ম্যারাথনও শেষ করেন। তার আহ্বানে স্পাইনাল ড্যামেজ নিয়ে রিসার্চের জন্য দুই লাখ পাউন্ড চাঁদাও উঠেছে। তিনি ট্রাফলগার স্কয়ারে প্যারা-অলিম্পিকে মশাল জ্বালানোর দায়িত্ব পেয়েছেন।

রোবোটিক স্যুট নির্মাতা কোম্পানির দেয়া বিবৃতি অনুযায়ী আমেরিকায় ৬ মিলিয়ন প্যারালাইজড লোক হুইলচেয়ার ব্যবহার করেন। এদের মধ্যে ২ লাখ ৫০ হাজার মানুষ এই নতুন রিওয়াক ডিভাইসটি ব্যবহারের উপযুক্ত।