আমাদের এই দেশের আনাচে-কানাচে অসংখ্য কুঃসংস্কার ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।এগুলো আমাদের লোক সাহিত্যেরই অংশ বিশেষ।কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের ব্যপার এই যে এই কুঃসংস্কার গুলো সংগ্রহের চেষ্টা কেউ করছে না।আসুন আমরা সবাই মিলে এই কুঃসংস্কার গুলো একত্রিত করি।EduportalBD.com এই কুঃসংস্কার গুলো কে সংগ্রহ করার চেষ্টায় এগিয়ে এসেছে।একার পক্ষে এত গুলো সংগ্রহ করা অসম্ভব প্রায়।তাই আপনাদের সহায়তা আমাদের একান্ত কাম্য।আপনার জানা কোনো কুঃসংস্কার থাকলে আমাদের গ্রুপে পোস্ট করে বা আপনি নিজেও সাইটে পোস্ট করে জানাতে পারেন।আশা করি আমাদের এই প্রচেষ্টায় আপনাদের সমর্থন পাবো।
❗ আমাদের ফেসবুক গ্রুপঃ www.Facebook.com/Groups/EduportalBD


 

  • লৌকিক ব্যাখ্যা: এটা মোটামুটি সারা বাংলাদেশে এমনকি ভারতের কয়েকটি বাঙালী অঞ্চলে প্রচলিত।লোকের বিশ্বাস হচ্ছে কেউ যদি কোন ফলের যেমন:বরই, কুল, তেঁতুল, আমলকী ইত্যাদি যদি বিচি সহ খেয়ে ফেলা হয় তাহলে খাদকের পেটে ঐ ফলের গাছ হবে।এখানেই শেষ নয়।মাথা ফুড়ে নাকি গাছের ডালপালাও ছড়ায়।তবে একজনও এরকম দেখেছে কিনা তা এখন পর্যন্ত জানা যায় নি।এরকম কুসংস্কারের উৎসও সঠিক পাওয়া যায় নি।

 

  • বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা: যেহেতু এটি কুসংস্কার তাই এর কোন বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই।কারণ একটি বীজের অংকুরোদমের জন্য অনুকূল পরিবেশ দরকার।কিন্তু মানুষের পেটে সে ধরনের অনুকূল পরিবেশ নেই।আর যদি আলো, বাতাস থাকত, তাহলেও পাকস্থলীর বিভিন্ন হজমি রসের জন্য বীজের সেখানেই মৃত্যু ঘটে।তবে যাই হোক এ কুসংস্কারে বিশ্বাসী খুব কম মানুষেই ফলের বিচি গিলে ফেলার কুঅভ্যাস আছে।