বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিগত দিক থেকে অন্যান্য দেশের পাশাপাশি বাংলাদেশও ধীরে ধীরে নিজেদের স্থান করে নিচ্ছে।যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থার (নাসা) ‘অ্যানুয়াল লুনাবোটিকস মাইনিং কম্পিটিশন (এলএমসি)’ প্রতিযোগিতায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তৈরি রোবট ‘চন্দ্রবোট-২’ জো কসমো অ্যাওয়ার্ড অব এক্সিলেন্সি বিভাগে  ১২তম স্থান অর্জন করেছে। নাসার আয়োজনে তৃতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত বার্ষিক লুনাবোটিকস মাইনিং কম্পিটিশন (এলএমসি) শীর্ষক প্রতিযোগিতায় জো কসমো অ্যাওয়ার্ড অব এক্সিলেন্সি বিভাগে এই স্থান অর্জন করেছে ‘চন্দ্রবোট-২’।

চন্দ্রবোট-০২

প্রতিযোগিতায় এবার আটটি দেশের ৫৫টি বিশ্ববিদ্যালয় অংশগ্রহণ করে। পাশাপাশি মাইনিং শাখায় ১৪তম হয়েছে চন্দ্রবোট-২।এছাড়া এশিয়ার সেরা রোবটের স্বীকৃতি পেয়েছে চন্দ্রবোট-০২ এ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনডোর গেমস হলে বৃহস্পতিবার দুপুরে ‘চন্দ্রবোট-২’ দলকে সম্বর্ধনা ও সম্মাননা দেওয়া হয়

গত ২১ থেকে ২৬ মে যুক্তরাষ্ট্রের কেনেডি স্পেস সেন্টারে অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ট টেকনোলজি (এমআইএসটি) এবং ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির (আইইউটি) দুটি দলও অংশ নেয়।

চন্দ্রবোট-২ দলের শিক্ষক প্রতিনিধি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. খলিলুর রহমান জানান, ‘অনসাইট মাইনিং শাখায় নয় কেজি মাটি সংগ্রহ করে মাইনিং ক্যাটাগরিতেও ১৪তম দল হয় চন্দ্রবোট-২ এ ছাড়া প্রতিযোগিতায় অনানুষ্ঠানিক রোবট-দৌড়েও চতুর্থ স্থান দখল করে দলটি।’
চন্দ্রবোট-২ রোবটের ১০ সদস্যের দলের মধ্যে ছিলেন: মো. জুনায়েদ হোসেন (দলনেতা), মাহমুদুল হাসান, মো. মশিউর রহমান, কাজী মোহাম্মাদ রাজীন, সারাহ বিনতে নাসির, নাবিল সাকের, বন্নি আমিন খান, মোহনা গাজী, খাইরুল হাসান ও ফাহিম আল হাসনাইন।

এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়কে সহযোগিতা করে মোবাইল সংযোগদাতা প্রতিষ্ঠান রবি আজিয়াটা লিমিটেড

ইতিহাস বলা শেষ এবার সবাই হাততালি দিন।ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ডে হাততালির নিয়ম জানেন না?চন্দ্রবোটের ফেসবুক পেজে একটি লাইক দিন।তাহলেই হবে।
ফেসবুক পেজঃ Bracu Chondrobot V.2
তথ্যটি আপনার বন্ধুদের জানান আর বাংলাদেশ নিয়ে গর্ববোধ করুন।
ধন্যবাদ।