কয়েকদিন আগেও বিশ্বব্যাপি সবচেয়ে আলোচিত সংবাদ ছিলো যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার অন্যান্য ব্যক্তি বর্গের ফোন এ আড়ি পাতা। বিশেষ করে NSA এবং ন্যাশনাল সিকিউরিটি এজেন্সির গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের ফোন এবং বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে নজরদারি।

Mark Zuckerberg Obama Holds Facebook Town JU6fj8Q1JMml

তবে এবার এ ব্যাপারে সরাসরি কথা বললেন ফেসবুক এর প্রতিষ্ঠাতা “মার্ক জুকেরবার্গ”। ফোন করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে।
এসময় মার্ক ফেসবুক ইউজারদের উপর মার্কিন নজরদারীর ব্যাপারে কথা বলেন। তিনি বলেন “আমাদের ইঞ্জিনিয়াররা প্রতি নিয়ত সাইবার অপরাধীদের থেকে ইউজারদের নিরাপদ রাখার চেষ্টা করে যাচ্ছে। কিন্তু সরকারের থেকে নয়, কারন সরকার বা ইন্টারনেট কেউ কারো প্রতি হুমকি নয়।”
এ ব্যাপারে ফেসবুক এ পোষ্ট দেন মার্কঃ দেখুন এখানে https://www.facebook.com/zuck/posts/10101301165605491
মার্ক এক সংবাদ সম্মেলনে আরো বলেন ,”ন্যাশনাল সিকিউরিটি এজেন্সি ইন্টারনেটকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে। তারা নিরীহ ব্যবহারকারিদের তথ্যে নানাভাবে অনুপ্রবেশ করছে।”

মার্ক জুকেরবার্গ
উল্লেখ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে এই ধরনের নজরদারির তথ্য সর্বপ্রথম প্রকাশ করেন NSA এক পুরাতন কর্মী Edward Snowden , উইকিলিকস এর কাছে। উইকিলিকস এটি প্রকাশ করার পর পরই বিশ্বব্যাপী সমালোচনার ঝড় ওঠে।

edward snowen
edward snowen

মার্ক তার পোষ্টে আরো বলেন,”মার্কিন সরকারের উচিত তারা যা করছে সে ব্যাপারে আরো স্বচ্ছ হওয়া, অন্যথায় জনগনের তাদের প্রতি বিরুপ ধারনা সৃষ্টি হবে”।
তবে মার্কিন সরকার বা ফেসবুক কেউই মার্ক ও ওবামার ফোন আলাপের বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেনি। কিন্তু এ ব্যাপারে মুখ খুলেছে স্বয়ং NSA
এক অফিসিয়াল বার্তায় তারা জানায়ঃ”NSA does not use its technical capabilities to impersonate U.S. company websites, Nor does NSA target any user of global Internet services without appropriate legal authority. Reports of indiscriminate computer exploitation operations are simply false.”
ফোন এ আড়িপাতা, নজরদারী, ইয়াহু ভিডিও চ্যাট রেকর্ড ইত্যাদি অনেক সংবাদের পর এই প্রথম কোনো টেক জায়ান্ট এ ব্যাপারে মুখ খুলল। নজরদারী ব্যাপারটি তাই আরো অনেকদুর গড়াবে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা।