কিছু জিনিস চিন্তা করতে বলি , জানি কোনো দিন করেননি । করে দেখুন , ভালো নাও লাগতে পারে।

আপনি যখন রাস্তায় কিছু খান কোন মানুষ যদি আপানার দিকে তাকিয়ে থাকে একটু খাবারের আশায় তখন জিনিসটা কেমন লাগে ?? আচ্ছা ধরুন এক বয়স্ক মহিলা যিনি আপনার দাদির বয়সী , যিনি আপনার কাছে এসে বলল ২ টা টাকা দিবা ??? ভাত খাব ??? উনি যদি আপনার নিজের দাদি হত ????

রাস্তার ছেলেটা যে কিনা আপনার খাবার চায় , সে যদি আপনার নিজের ভাই হত ??? আপনি কি তাকে তাড়িয়ে দিতে পারতেন ???
বয়স্ক রিক্সাওয়ালা যে কিনা আপনার বাবার বয়সী , সেখানে যদি আপনার নিজের বাবা থাকত তাহলে কি তার সাথে খারাপ ব্যবহার করতে পারতেন????

এই সব জায়গায় নিজের মানুষকে বসানোটা খুব সহজ নয় , কারণ একদিকে বাস্তবতা আর অপর দিকে আবেগ । তাও একটু চিন্তা করে দেখতে পারেন । আমার ভাবতে এখন হতাশ লাগে , কেন জানেন ??? ভেবে কোন কাজ  হবে কি???
ভেবে ভেবে সময় চলে যায় আর তখন আফ্রিকার সুদানে মানুষ মাটির পিঠা খাইয়ে বাচ্চাদের শান্ত করে । কি লাভ ভেবে ??? সবাই তো ভাবছে । আমাদের সরাসরি নিজের কাজে নামা দরকার । বদলেছেন , অনেক । আগে মানুষ ছিলেন , এখন অমানুষ হয়েছেন । একটু কাজ করেন অন্য মানুষের জন্য। দেখবেন দেশটা এগিয়ে যাবে ।আমার কাছে কেউ হাত পাতলে কিছু না কিছু দেওয়ার চেষ্টা করি , কারণ আমিও মাঝে মাঝে মানুষের কাছে হাত পাতি মানুষের সেবার জন্য ।
এখন আমি যদি কাউকে না দেই তাহলে আমাকে কেন মানুষ দিবে??

শেষে একটা কথাই বলি দেশে অনেক ময়লা জমে গেছে । এই ময়লা গুলো আমদের পরিস্কার করতে হবে । আমরা ১৬ কোটি মানুষ । আসেন না ময়লা গুলো পরিস্কার করি। 🙂